বন্য প্রানী নিধনঃ জরুরি ভিত্তিতে পুলিশকে জানান

সর্বশেষ আপডেট সেপ্টেম্বর ০৮, ২০১৬, বৃহস্পতিবার

ছবিসূত্র : ইন্টারনেট থেকে প্রাপ্ত

সেবার বিবরণ:

প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রক্ষায় বন্য প্রানীর ভূমিকা অপরিসীম। তবে কিছু অসাধু ব্যক্তি রয়েছে যারা সখ পুরনের জন্য বা ব্যবসার জন্য বন্য প্রানী শিকার করে থাকে। বিশেষ করে বিভিন্ন ধরনের পাখি এবং কিছু বিরল প্রানী ধরে বাজারে বিক্রি করে। তাছাড়া শীতকালে দেশে অথিতি পাখিগুলোও রেহাই পায় না। কিছু প্রানী রয়েছে যা দিয়ে বড় বড় রোগের ওষুধ বানানো হয় যেমন টক্কা, বিভিন্ন সাপ ইত্যাদি ধরে বাইরের দেশে পাচার করছে। তাই এ সকল অসাধু ব্যবসায়ীকে ধরিয়ে দিতে পুলিশকে সহায়তা করা যে কোন নাগরিকের কর্তব্য। পুলিশ সাথে সাথে অ্যাকশান গ্রহন করবেন এবং দোষী ব্যক্তির নামে মামলা দিয়ে দেবে।

সেবার সুবিধা:

  • পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা হয়।
  • পশু পাখির পাচার রোধ হয়।
  • প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বিনষ্ট হয় না।
  • পশু পাখি অবাধে বিচরণ করতে পারে
  • অসাধু ব্যবসায়ীদের উপযুক্ত শাস্তি প্রদান করা হয়।

করণীয় কি :

কোন সচেতন নাগরিক যদি দেখেন বা বুঝতে পারেন যে কেউ বন্য প্রানী নিধন করেন বা ব্যবসা করেন তাহলে দেরি না করে নিকটস্থ থানায় জানাতে পারবেন। আজকের তথ্য প্রযুক্তির যুগে বিভিন্নভাবে পুলিশকে জানানোর ব্যবস্থা আছে। ফোন, মোবাইল এ্যাপস ছাড়াও সরাসরি পুলিশকে জানানোর ব্যবস্থা আছে। এছাড়াও পুলিশের হেল্প লাইনে ফোন করে জানানোর সুযোগ রয়েছে। পুলিশ তদন্তের মাধ্যমে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

 

সেবা প্রাপ্তির যোগ্যতা                    :  বাংলাদেশের যে কোন নাগরিক

প্রয়োজনীয় কাগজপত্র                   :  প্রয়োজন নেই

প্রয়োজনীয় খরচ                           :  বিনামূল্যে এই সেবা প্রদান করা হয়

প্রয়োজনীয় সময়                           :  খুব শিঘ্রই

কাজ শুরু হবে                              :  নিকটস্থ থানা

আবেদনের সময়                           :  সারা বছর যে কোন সময়

দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা                      :  ওসি, এসআই/এএসআই

সেবা না পেলে কোথায় যাবেন        :  সার্কেল এ এস পি

বিস্তারিত তথ্যের জন্য                   : ১০০ 

প্রয়োজনীয় ওয়েবসাইট                 : http://www.police.gov.bd